দিল্লির উদ্দেশে ঢাকা ছাড়লেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসঙ্ঘের সাধারণ অধিবেশনে অংশগ্রহণ শেষে দেশে ফেরার পর চারদিনের সফরে ভারতের নয়াদিল্লির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে করে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যাত্রা শুরু করেন তিনি। ফ্লাইটটি ভারতীয় সময় সকাল ১০টায় (বাংলাদেশ সময় সাড়ে ১০টায়) নয়াদিল্লি পৌঁছানোর কথা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, এ সফরে ১০ জন মন্ত্রী, উপদেষ্টা, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীসহ তার সফরসঙ্গীর সংখ্যা মোট ১৭১ জন। বুধবার (২ অক্টোবর) পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন জানান, প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে দু’দেশের মধ্যে কমপক্ষে ১০-১২টি চুক্তি স্বাক্ষর হবে।

কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের সম্মেলনে অংশ নিতে এ সফর হলেও ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে অংশ নেবেন শেখ হাসিনা। ৩ ও ৪ অক্টোবর ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের সম্মেলনে অংশ নেবেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ হাইকমিশন আয়োজিত সংবর্ধনা ও নৈশভোজে যোগ দেবেন শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রীর সফরসূচি অনুযায়ী, শনিবার (৫ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ঐতিহাসিক হায়দরাবাদ হাউসে ভারত ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীদের মধ্যকার বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। পরে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সৌজন্যে আয়োজিত ভারতের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যাহ্নভোজে যোগ দেবেন শেখ হাসিনা।

এদিন সকালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর। একই দিন বিকেলে ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন শেখ হাসিনা।

শুক্রবার শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে ভারত সফররত সিঙ্গাপুরের ডেপুটি প্রধানমন্ত্রী হেং সুয়ে কেটের। প্রধানমন্ত্রীর সফরসূচিতে রোববার ভারতের কংগ্রেস পার্টির প্রধান সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গেও বৈঠক করার কথা রয়েছে।

রোববার বিকেলে বাংলাদেশের উদ্দেশে দিল্লি ছাড়ার কথা রয়েছে শেখ হাসিনার।